রোমাঞ্চকর ম্যাচে খুলনার জয়

রোমাঞ্চকর ম্যাচে খুলনার জয়

শ্রীলঙ্কান অলরাউন্ডারের সাত ছক্কায় ১৮ বলে অর্ধশতকে যে রোমাঞ্চকর জয়ের আশা সৃষ্টি হয়ে ছিল ঢাকা ডায়নামাইটসের, সে আশা থমকে যায় অষ্টম তম ছক্কা মারতে গিয়ে ক্যাচে পরিনত হলে। তাই ৯ রানে জয় পায় খুলনা।

ঢাকা ডায়নামাইটসের ফিল্ডারদের ব্যর্থতায় ২ বার করে জীবন ফিরে পান আন্দ্রে ফ্লেচার ও মাহমুদউল্লাহ। আর অধিনায়কের দুর্দান্ত অর্ধশতকে ৫ উইকেটে ১৫৭ রান করে খুলনা।

১৫৮ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি তারকাখচিত ঢাকা ডায়নামাইটস। এদিনে কুমার সাঙ্গাকারা, মেহেদী মারুফ, নাসির হোসেন, ম্যাট কোলস এবং সাকিব আল হাসান ও ডোয়াইন ব্রাভোও কোন চমক দেখাতে পারেনি।

অপরদিকে তরুন ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক হোসেন এক পাশ আগলে ধরলেও চাপ সামলাতে না পেরে ৩৫ রান করে সাঁজ ঘরের পথ ধরলে ম্যাচের হাল ধরেন শ্রীলঙ্কান অলরাউন্ডার সিকুগে প্রসন্ন। তার দ্রুত গতির অর্ধশতকে জয়ের দার প্রান্তে পৌঁছে যায় ঢাকা। তখন শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল মাত্র ১০ রানের। সেই সমীকরণ মেলাতে না পেরে অষ্টম ছক্কা ক্যাচে পরিনত হলে ৯ রানে রোমাঞ্চকর জয় পায় খুলনা টাইটান।

প্রসন্ন ২২ বলে ৭ টি ছক্কায় ৫৩ রান করেন।

খুলনার পক্ষে কুপার ও স্পিনার মোশাররফ ৩ টি করে উইকেট নিয়েছেন।

এর আগে শনিবার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি মাহমুদুল্লারা। ৪ ওভারে ২৩ রানে ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পরে যায় খুলনা। এরপরে রানের খাতাকে সচ্চল রাখেন শুভাগত হোম ও অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ। তাদের জুটিতে ৪৪ রান যোগ হলে সস্থি ফিরে পায় খুলনা।

ডোয়াইন ব্রাভো বলে শুভাগত হোম ও নিকোলাস আউট হলে ক্রিজে আসেন প্রথমবারের মতো খেলতে নামা তাইবুর রহমান। তাদের ৬ ওভারে ৫৭ রানের দুর্দান্ত জুটিতে ১৫৭ রান করে খুলনা।

অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ ৪৪ বলে ৪ টি চার ও ৪ টি ছক্কায় করেন ৬২ রান।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: মোশাররফ হোসেন রুবেল।

Check Also

মেসির নৈপূর্ণে বার্সার জয়

মেসির নৈপূর্ণে বার্সার জয়

গত রোববার রাতে এসপানিওলকে হারিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের সাথে ব্যবধান কমিয়েছে লুইস এনরিকের শিষ্যরা। তারা মেসির …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

4 + one =